HomeHacking Newsপাবলিক ওয়াইফাই ব্যবহার করছেন? থামুন। হ্যাকিং এর শিকার হবার আগে নিরাপদ থাকার কৌশলগুলো শিখে নিন।

পাবলিক ওয়াইফাই ব্যবহার করছেন? থামুন। হ্যাকিং এর শিকার হবার আগে নিরাপদ থাকার কৌশলগুলো শিখে নিন।

About Blogger (Total 3257 Blogs Written) 84 Views

contributor

আমার Youtube Channel (Movie Bangla) আশা করি সবাই ভিজিট করুন।

No thumbnail

পার্ক, কফিশপ, রেস্টুরেন্ট কিংবা বাস; ফ্রী ওয়াইফাই এখন মেলে সবখানেই।ভাল স্পীড আর কোন চার্জ না নেয়ায় আমরা মহানন্দে এসব ওয়াইফাই নেটওয়ার্কে ল্যাপটপ বা মোবাইল কানেক্ট করে ইন্টারনেট ব্যবহার করে থাকি। কিন্তু জানেন কি, এইসব পাবলিক নেটওয়ার্ক আপনার জন্য কতটা বড় হুমকি? জানেন কি সতর্ক না থাকলে এইসবনেটওয়ার্ক থেকে চুরি হয়ে যেতে পারে আপনার সকল ডাটা?হ্যাঁ পাবলিক ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক ব্যবহারের সময় সঠিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা না নিলে হ্যাক হতে পারে আপনার ডিভাইসটি আর আপনার সকল তথ্য চলে যেতে পারে হ্যাকারদের কাছে। ওয়াইফাই রাউটারগুলোর নিজস্ব ফায়ারওয়াল আছে, এর মাধ্যমে আপনি ইন্টারনেট থেকে যে কোন সাইবার বা ম্যালওয়্যার এট্যাক থেকে কিছুটা নিরাপত্তা পেলেও একই ওয়াইফাই নেটওয়ার্কে কানেক্টেড অন্যান্য ডিভাইসগুলো থেকে কোন ধরণের নিরাপত্তা পাবেন না। আর একই ওয়াইফাইনেটওয়ার্কে কানেক্টেড অন্য একটি ডিভাইস থেকে আপনার পাসওয়ার্ড চুরি করা কিংবা আপনার ডিভাইসটি হ্যাক করেনেয়া পানির মত সোজা, এমনকি আপনি আপনার ডিভাইসে কি করছেন সেটাও সম্পূর্ণরূপে দেখতে পাবে হ্যাকাররা।তো আপনি কি করবেন? পাবলিক ওয়াইফাই ইউস করা একদম বন্ধ করে দেবেন?সাজেশন হল যদি পারেন যতটা সম্ভব পাবলিক ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক এড়িয়ে চলুন। একান্তই যদি ব্যবহার করতেই হয়তাহলে অতিরিক্ত নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা নিয়ে তারপর ব্যবহার করুন। কি ধরণের ব্যবস্থা নিবেন? হ্যাঁ পাবলিক ওয়াইফাই নেটওয়ার্কে নিরাপদ থাকার জন্য কি কি ব্যবস্থা নিবেন সেটা নিয়েই আজকের টিউন। তো চলুন শুরু করা যাক।সেটিংস পরিবর্তন করুননিরাপদ থাকতে হবে পাবলিক ওয়াইফাই নেটওয়ার্কে তার জন্য প্রথম যে কাজটাআপনি করতে পারেন সেটা হল ওয়াইফাই এর কিছু সেটিংস পরিবর্তন করে নেয়া।শেয়ারিং অফ করে দিনঘরে বা নিজস্ব ওয়াইফাই নেটওয়ার্কে থাকাবস্থায় আমরা ডিভাইসের শেয়ারিং চালু করে রাখি। এর মাধ্যমে অন্য কোন ডিভাইস নেটওয়ার্কে রিমোট লগিন করতে পারে, এছাড়াও প্রিন্টার বা অন্য কোন ওয়াইফাই নির্ভর প্রযুক্তি পণ্য ব্যবহারের জন্যও শেয়ারিং অন করে রাখতে হয়। কিন্তু যখন আপনি আছেন পাবলিক নেটওয়ার্কে তখন আপনাকে অবশ্যই এই শেয়ারিং বন্ধ রাখতে হবে।উইন্ডোস : উইন্ডোসে শেয়ারিং বন্ধ করার জন্য কনট্রোল প্যানেল ওপেন করুন। Start মেনু থেকে Control Panel এ যেতে পারবেন। কনট্রোল প্যানেল থেকে Network and Internet > Network and Sharing Center এ যান। এরপর Advance Sharing Settings এ ক্লিক করুন। এখান থেকে সরাসরি File and Printer Sharing এবং Folder Sharing বন্ধ করে দিতে পারবেন, এছাড়াও Network Discovery বন্ধ করে দিন।ম্যাকিন্টোস : অ্যাপল এর ম্যাকিন্টোসে শেয়ারিং বন্ধ করার জন্য System Preferences থেকে Sharing এ গিয়ে সবগুলো ঘর থেকে টিক চিহ্ন উঠিয়ে দিন। আপনি Network Discovery ও বন্ধ করে দিতে চাইবেন। ম্যাক এ ফায়ালও্যালের এডভান্স সেটিংসের নিচে Stealth Mode অন করে দিলেই এটা হয়ে যাবে।এন্ড্রয়েড : এন্ড্রয়েড এ শেয়ারিং অটোম্যাটিক বন্ধ থাকে। আপনি অনুমতি না দেয়া পর্যন্ত কিছুই শেয়ার করা সম্ভব না।

163 total views, 2 views today

1 year ago (August 9, 2017) FavoriteLoadingAdd to favorites

Leave a Reply

You must be Logged in to post comment.

Related Posts


Priyo24 Home